Friday , September 18 2020

ক’রো’না হলেই এমিরেটস এয়ারলাইন দিবে ১ লাখ ৭৬ হাজার ডলার

বিশ্বে প্রতিদিনই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলছে। কিছু দেশে কমলেও বেশিভাগ দেশই ভাইরাসটির তাণ্ডবে বিপর্যস্ত অবস্থায়।

মাসের পর মাস পেরোলেও এর আ,তঙ্ক থেকে কোনোভাবেই রেহাই পাচ্ছে না মানুষ।

এমন যখন পরিস্থিতি, তখন বিমান যাত্রীদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে উদ্যোগী হয়েছে বিমানসংস্থা এমিরেটস এয়ারলাইন।তাদের বিমানে যাত্রার সময় কোনও যাত্রী করোনায় আক্রান্ত হলে তাঁর চিকিৎসার খরচ দেবে এই সংস্থা!

এমিরেটস এয়ারলাইন জানিয়েছে, তাদের বিমানে চড়ে যাওয়ার সময় কোনও যাত্রী করোনায় আক্রান্ত হলে তাঁর চিকিৎসার খরচ বাবদ ১ লাখ ৭৬ হাজার ডলার (বাংলাদেশি টাকায় যা প্রায় দেড় কোটি টাকা) পর্যন্ত দেবে এমিরেটস এয়ারলাইন।

শুধু তাই নয়, মৃদু উপসর্গযুক্ত করোনা আক্রান্ত যাত্রীদের ক্ষেত্রে হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে থাকার খরব বাবদ প্রতিদিন ১১৮ ডলার (বাংলাদেশি মূল্যে যা প্রায় ১০ হাজার টাকা) করে দেবে সংস্থা।

সংস্থা জানিয়েছে, এই এমিরেটস এয়ারলাইন-এর টিকিট কেটে বিমানে ওঠার পর ৩১ দিন পর্যন্ত প্রযোজ্য হবে এই ভর্তুকির শর্তগুলি।

এই ৩১ দিনের মধ্যে অন্যত্র ভ্রমণ করলেও ওই যাত্রী এই ভর্তুকির আওতায় থাকবেন।
তবে শুধুমাত্র চিকিৎসার খরচই নয়, এই ৩১ দিনের মধ্যে কোনও যাত্রীর করোনায় মৃত্যু হলেও তাঁর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার জন্য ১,৭৬৫ ডলার (বাংলাদেশি মূল্যে যা প্রায় দেড় লাখ টাকা) দেবে সংস্থাটি।

তবে করোনা পরীক্ষার জন্য যে খরচ হবে, তা দিতে হবে ওই যাত্রীকেই। রিপোর্ট পজেটিভ হলে ওই রিপোর্ট নিয়ে এই খরচের অনুমোদন পেতে সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে যাত্রীকে।

করোনা মহামারি, লকডাউনের প্রভাবে আন্তর্জাতিক ভ্রমণ প্রায় ৯০ শতাংশ কমে গেছে। যার প্রভাব পড়েছে এমিরেটস এয়ারলাইন-এর পরিবহন ব্যবসায়ও। তাই এ বার যাত্রী সুরক্ষার বাড়তি দায়িত্ব নিয়ে নিজেদের ব্যবসা ফেরাতে চাইছে সংস্থা। যাত্রীরা ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত এই বিশেষ সুবিধা পাবেন বলে জানিয়েছে সংস্থা।